অফিসের বর্ণনা

 

অর্থ মন্ত্রণালয়ের ১৯৮৫ সালের একটি স্মারক বলে হিসাব মহানিয়ন্ত্রকের কার্যালয় স্থাপিত হয়। পূর্বে এটি এজি অফিস (সিভিল) নামে পরিচিত ছিল। ব্রিটিশ আমলে ১৯৪৭ সালে স্থাপিত, অফিস অফ দ্য একাউন্ট্যান্ট জেনারেল, হলো এর মূল ভিত্তি। সিজিএ অফিস গঠনের ফলে বাংলাদেশের সরকারি হিসাব ব্যবস্থা বিভাগীয়করনের সুযোগ সৃষ্টি হয়। এর ফলে মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক অফিস (মন্ত্রণালয়) বা বিভাগের একাউন্টগুলোর উন্নয়ন ও হিসাব প্রস্তুত করার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি পায়।

সিজিএ অফিস মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক মহোদয়ের নির্দেশনা মোতাবেক স্বাধীনভাবে অর্থ বিভাগের প্রশাসনিক নিয়ন্ত্রনে কাজ করে যার জন্য সিজিএ অফিস এককভাবে দায়বদ্ধ। এটি বাংলাদেশ সরকারের মাসিক হিসাব, অর্থ অনুমোদন ও একাউন্ট তৈরি করে। সকল সিভিল অফিসার এবং সরকারী সংস্থার দাবির দায় পরিশোধ এবং নিজ নিজ অফিসগুলোর প্রাথমিক হিসাব প্রস্তুত করার জন্য বিভাগীয় হিসাব নিয়ন্ত্রক, জেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা এবং উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তাদের কাজ তত্ত্বাবধান করে। এরই আলোকে হিসাবরক্ষণ ব্যবস্থা শক্তিশালী করার জন্য  সিএও/পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠা লাভ করে। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এটি পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক কার্যাবলী সূচারুরূপে সম্পন্ন করার মাধ্যমে হিসাবায়ন ব্যাবস্থা শক্তিশালী করে এবং গতিশিলতা নিয়ে আসে। এই অফিস বর্তমানে সেগুনবাগিচায় ২য় ১২ তলা সরকারি অফিস ভবনের ১১ তলায় অবস্থিত।